ঢাকামঙ্গলবার , ১৩ জুলাই ২০২১
  • অন্যান্য

ঈদকে সামনে রেখে বাড়ছে আদা ও রসুনের দাম

admin
জুলাই ১৩, ২০২১ ৮:০৪ পূর্বাহ্ন । ৯১ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি





আসন্ন কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে বাড়ছে আদা ও রসুনের দাম। ঈদ সামনে রেখে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আদা ও রসুনের দাম। তবে ঈদ দোরগোড়ায় চলে আসলেও গরম মসলার দামে কোনো প্রভাব পড়েনি।

পাইকারি ব্যবসায়ীরা জানান,  কোরবানির ঈদের আগের এক মাস তার থেকে ২০-৩০ শতাংশ বেশি বিক্রি হয়। তবে এবার ঈদ কেন্দ্রিক কোনো বিক্রি নেই। এমনকি স্বাভাবিক সময়ে যে মসলা বিক্রি হয়, এখন বিক্রি তার ২০-৩০ শতাংশ মতো আছে। অর্থাৎ স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় বিক্রি ৭০ শতাংশের মতো কমে গেছে।

বিক্রি কমে যাওয়ার কারণ হিসেবে তারা বলছেন, এখন করোনাভাইরাসের প্রকোপ গ্রাম অঞ্চলে বড় আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকার বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। যে কারণে দোকান খুব বেশি সময় খোলা রাখা যাচ্ছে না। আবার ঢাকার বাহিরের ক্রেতারা ঢাকায় আসতে পারছেন না। সবমিলিয়ে বিক্রি কমে গেছে। আর বিক্রি কমার কারণে দামও কমেছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে চীনা আদার দাম কেজিতে ৬০ টাকা এবং রসুনের দাম ৪০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। খুচরা পর্যায়ে চীনা আদার কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৮০-২০০ টাকা, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ১৩০ থেকে ১৪০ টাকার মধ্যে। আর চীনা রসুন বিক্রি হচ্ছে ১৬০-১৮০ টাকা কেজি। এক সপ্তাহ আগে এই রসুনের দাম ছিল ১৩০-১৪০ টাকার মধ্যে।

কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ী আলী নূর বলেন, দেশি আদা-রসুন বাজারে কম রয়েছে। আবার সামনে ঈদ হওয়ার কারণে সম্প্রতি কিছু ক্রেতা আদা-রসুন বাড়তি পরিমাণে কিনেছেন। এ সবকিছু মিলেই আদা ও রসুনের দাম বেড়েছে।

মালিবাগের ব্যবসায়ী মিরাজ বলেন, এ লকডাউনের কারণে কয়েকদিন আগে মাল কম থাকায় দাম একটু বেড়েছিল। কিন্তু এখন আবার কমে গেছে। পাইকারিতে তুলনামূলক কম দামে গরম মসলা কিনতে পাওয়া যাচ্ছে। যে কারণে আমরাও কম দামে বিক্রি করতে পারছি।


আরও পড়ুনঃ নীলফামারীতে অনাবৃষ্টিতে পাট জাগ ও আমন চাষ সমস্যায় কৃষকরা







Credit: Source link