ঢাকারবিবার , ২ মে ২০২১
  • অন্যান্য

কুমিল্লায় জনপ্রিয় হচ্ছে মাশরুম চাষ, স্বাবলম্বী হচ্ছেন অনেকেই

admin
মে ২, ২০২১ ৩:২৯ পূর্বাহ্ন । ১৬০ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি





কুমিল্লায় দিন দিন জনপ্রিয় হচ্ছে মাশরুম চাষ। বর্তমান সময়ে ছোট বড় সবার কাছেই হাল ফ্যাশনের একটি অন্যতম খাবারে পরিণত হয়েছে এই মাশরুম। যারফলে প্রতিদিনই বাড়ছে মাশরুমের চাহিদা। পাশাপাশি নিত্য নতুন মাশরুম চাষে উদ্যোক্তাও সৃষ্টি হচ্ছে। বর্তমানে প্রতিদিনই মাশরুম উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর দিকে ঝুঁকছেন ক্রেতারা।

সূত্রমতে, প্রতিটি ৭০০ গ্রাম বীজ বা স্পন থেকে প্রায় ২৫০ থেকে ৪০০ গ্রাম মাশরুম পাওয়া যায়। সুতরাং ২০০টি বীজ বা স্পন থেকে প্রায় ৫০ কেজি মাশরুম পাওয়া সম্ভব। বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি মাশরুমের দাম মিনিমাম ১৭০-২০০ টাকা।

কুমিল্লা সদর উপজেলার ছত্রখিল গ্রামের মাশরুম চাষি চন্দন কুমার সাহা বলেন, যখন মাশরুম চাষ শুরু করি তখন অনেকেই নানান কথা বলেছিল। সেই যে শুরু আজ প্রায় ১৫ বছর ধরে মাশরুম চাষ করি। স্থানীয় বাজার সহ ঢাকা শহরে মাশরুমের ব্যাপক চাহিদা থাকায় দামও ভাল পাওয়া যায়। ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী উৎপাদন করতে পারছিনা। তবে তরুণরা উদ্বুদ্ধ হলে জেলায় মাশরুমের উৎপাদন কিছুটা বাড়বে। পাশাপাশি শিক্ষিত বেকারদের কর্মসংস্থানেরও সুযোগ সৃষ্টি হবে।

এদিকে পুষ্টিবিদরা বল্পছেন, মাশরুমে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, খনিজ পদার্থ ও ভিটামিন থাকে। খেতেও সুস্বাদু ও সহজপাচ্য। প্রোটিনের পাশাপাশি প্রচুর ক্যালসিয়াম থাকায় হাড় ও দাঁতের গঠনে বিশেষ উপযোগী। ফলিক আ্যসিড থাকায় রক্তাল্পতা রোগে উপকারী। বাজারে মাশরুমের চাহিদা রয়েছে প্রচুর।

হর্টিকালচার সেন্টার কুমিল্লার উপ-পরিচালক মো. আমজাদ হোসেন বলেন, মাশরুম অল্প জায়গায় অল্প পুঁজিতে চাষ করা যায়। ব্যক্তিগত পর্যায়ে ধীরে ধীরে হলেও মাশরুম চাষ শুরু হয়েছে। মাশরুম চাষ প্রকল্প চালু হলেও সেটা বর্তমান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় উৎপাদন কমে গেছে। এ সংক্রান্ত বড় বরাদ্দ পাওয়া গেলে আরো বেশি মানুষের মাঝে মাশরুম চাষ ছড়িয়ে দেয়া যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।







Credit: Source link