ঢাকামঙ্গলবার , ১১ মে ২০২১
  • অন্যান্য

গরুর খামারে ভাইরাসের আক্রমণের আগে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপসমূহ

admin
মে ১১, ২০২১ ৮:২৪ পূর্বাহ্ন । ৮৮ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি





গরুর খামারে ভাইরাসের আক্রমণের আগে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপসমূহ কি কি রয়েছে সেগুলো খামারিদের জানা দরকার। বর্তমানে আমাদের দেশের অনেক বেকার যুবক গরু পালনে ঝুঁকছেন। গরু পালনের মাধ্যমে লাভবান হওয়ার জন্য গরুকে রোগমুক্ত রাখার উপায় সম্পর্কে জানতে হবে। আজকের এ লেখায় আমরা জেনে নিব গরুর খামারে ভাইরাসের আক্রমণের আগে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপসমূহ সম্পর্কে-

গরুর খামারে ভাইরাসের আক্রমণের আগে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপসমূহঃ


১। গরুর খামারে বাইরের কেউ প্রবেশ করতে চাইলে প্রথমেই তার পুরো শরীর জীবাণুমুক্ত করে এরপর খামারের ভেতরে প্রবেশ করাতে হবে। এছাড়াও যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেই বহিরাগতদের প্রবেশ করাতে হবে। এভাবে নিরাপত্তা নিশ্চিত করলে গরুর খামারে সহজেই কোন ভাইরাস প্রবেশ করতে পারবে না।

২। গরুর খামারকে ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষা করতে হলে খামারে নতুন কোন গরু নিয়ে আসার আগে গরুর খামারকে ভাবভাবে জীবাণুনাশক দিয়ে স্প্রে করে দিতে হবে। এরপর নতুন গরুর শরীর ভালোভাবে পরিষ্কার করে জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

৩। গরুর খামারে যাতে কোন অতিথি পাখি প্রবেশ করতে না পারে সেদিকেও বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে। কোন কারণে গরুর খামারে অতিথি পাখি প্রবেশ করলে খামারের গরুতে ভাইরাস ছড়িয়ে দিতে পারে। তাই গরুর খামারের অতিথি পাখির আগমন বন্ধ করতে হবে।

৪। গরুর শরীর জীবাণুমুক্ত করার পর গরুকে কিছুক্ষন রোদে রেখে দিতে হবে। এরপর গরুটিকে আলাদা একটি ঘরে এক সপ্তাহের মতো রাখার পর যদি কোন রোগের লক্ষণ না পাওয়া যায় তাহলেই গরুটিকে খামারের ভেতর প্রবেশ করাতে হবে। আর এভাবে খামারে গরুকে প্রবেশ করালে সহজেই কোন ভাইরাস প্রবেশ করতে পারবে না।

৫। খামারের গরু কোন কারণে ভাইরাসের দ্বারা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে সেই গরুকে খুব দ্রুত খামার থেকে সরিয়ে নিয়ে দুরের কোন স্থানে পুতে ফেলতে হবে। তা না করা হলে অন্য গরুগুলো আক্রান্ত হতে পারে।


আরও পড়ুনঃ গরুর ক্যালসিয়াম ও ফসফরাসের অভাবজনিত রোগের লক্ষণ.


ডেইরি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার







Credit: Source link