ঢাকামঙ্গলবার , ২২ জুন ২০২১
  • অন্যান্য

গরু পালনে শেড তৈরির কৌশল ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনা |

admin
জুন ২২, ২০২১ ৭:৫৩ পূর্বাহ্ন । ৫৭ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি


গরু পালনে শেড তৈরির কৌশল ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনা বিষয়ে খামারিদের ভালোভাবে জেনে রাখা দরকার। লাভজনক হওয়ার কারণে দিন দিন আমাদের দেশে গরু পালন বৃদ্ধি পাচ্ছে। গরু পালনে লাভবান হওয়ার জন্য বেশ কিছু বিষয় গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে হয়। আজ আমরা জেনে নিব গরু পালনে শেড তৈরির কৌশল ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে-

গরু পালনে শেড তৈরির কৌশল ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনাঃ


যারা নিজের বাড়িতে গবাদিপশু পালন করার পরিকল্পনা করেছেন তারা অনেকেই ভাবেন কিভাবে গরুর ঘর তৈরি করবেন। এ বিষয়টি নিয়ে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হল-

১। গরু পালনে শেড নির্মাণের জন্য বাড়িতে যেখানে আলো বাতাস চলাচল করতে পারবে এমন জায়গা বেছে নিতে হবে। এতে খামারের গরু প্রয়োজনীয় আলো ও বাতাস পাবে। ফলে গরু সুস্থ থাকবে ও রোগে আক্রান্ত হবে কম।

২। শেড তৈরির জন্য নির্ধারিত জায়গায় ৬-৮ ইঞ্চি বালি ফেলতে হবে এবং একটু ঢালু করে নিতে হবে যাতে পানি খুব তাড়াতাড়ি চলে যায়। এতে খামারে স্যাঁতস্যাঁতে ভাব দূর হয়ে যাবে ও শেড শুকনো থাকবে।

৩। গরুর জন্য নির্ধারিত জায়গার উপর ইট বিছিয়ে দিতে হবে এবং ১ থেকে ১ ১/২ সে:মি ফাঁকা রাখতে হবে। বালি সিমেন্ট পরিমাণ মত নিয়ে ইটের উপর দিয়ে একটি বস্তা দিয়ে লেপে দিতে হবে।

৪। প্রত্যেকটি গরুকে আলাদা করে রাখার জন্য জিআইপাইপ দিয়ে পার্টিশন দেয়া হয়, পার্টিশনের পাইপ লম্বায় ৯০ সে.মি. এবং উচ্চতায় ৪৫ সে.মি. হওয়া প্রয়োজন, একটি গরুর দাঁড়াবার স্থান ১৬৫ সে.মি., পাশের জায়গা ১০৫ সে.মি., খাবার পাত্র ৭৫ সে.মি. হওয়া প্রয়োজন, এবং গরুর পাশে একটু নিচু ওপর পাশে একটু উঁচু রাখতে হবে।

৫। একই মাপে গরুর সংখ্যা অনুযায়ী জায়গা নির্ধারণ করে ঘর তৈরি করতে হবে। এতে প্রত্যেক গরু থাকার ও চলাফেরা করার জন্য প্রয়োজনীয় জায়গা পাবে।

৬। শেডে গরু বাঁধার জন্য খাবার পাত্রের সাথে একটি করে রিং লাগিয়ে নিতে হবে।

৭। শেডের পাশ দিয়ে একটি ড্রেন রাখতে হবে যাতে করে মূত্র বা পানি নেমে যেতে পারে। এতে শেডের ভিতরে শুকনো থাকতে সহায়তা করবে। আর পানি বা মুত্রকে একটি নিরাপদ দূরত্বে নিয়ে যেতে হবে।


আরও পড়ুনঃ দিনাজপুরে প্রস্তুত সাড়ে ৬ লাখ টাকার গরু


ডেইরি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার

Credit: Source link