ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১২ অগাস্ট ২০২১
  • অন্যান্য

গাভী হিটে আসার লক্ষণ সমূহ

admin
অগাস্ট ১২, ২০২১ ৩:৫২ অপরাহ্ন । ২২২ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি

গাভী হিটে আসার লক্ষণ সমূহ সকল ডেইরি খামারিদের জন্য অবশ্যই জানা দরকার। বর্তমান সময়ে আমাদের বাংলাদেশে প্রচুর পরিমাণে গাভী পালন করা হচ্ছে। গাভী পালন করে লাভবান হওয়ার জন্য সঠিক সময়ের মধ্যে বাচ্চা উৎপাদনের কোন বিকল্প নেই। আর উন্নত জাতের বাচ্চা উৎপাদনের জন্যই গাভীকে উন্নত জাতের বীজ প্রদান করা হয়। আসেন প্রথমে যেনে নেই গাভী হিটে আসার লক্ষণ ও হিটে আসার ধাপ গুলো সম্পর্কে।

গাভী হিটে আসার লক্ষণ ও ধাপঃ
১/প্রস্তুতিপর্ব বা pro-Estrous
২/যৌন উত্তেজনা পর্ব বা Estrous
৩/কামত্তোর পর্ব বা Meta _ Estrous
৪/নিস্ক্রিয় পর্ব বা Di-Estrous
আমাদের বাংলাদেশের বেশিরভাগ খামারির গাভী হিটে আসার লক্ষণ ও এর ধাপ বা পর্বগুলো সম্পর্কে সঠিক ধারণা না থাকার কারণে তারা সময়মতো গাভিকে বিজ দিতে ব্যর্থ হয় ফলে গাভী কনসিভ করে না বা বীজ রাখতে পারে না।
যদি খামারী ভাইয়েরা গাভী হিটে আসার লক্ষণ ও এর পর্বগুলো সম্পর্কে ধারনা নিতে পারে তাহলে অনেকাংশে সফল হবে।

গাভী হিটে আসার চারটি ধাপ বা পর্ব রয়েছে। যথাঃ
১/প্রস্তুতি পর্ব (Pro-Estrous)
গাভী হিটে আসার লক্ষণ গুলোর প্রথম টি হলো এটি। গাভী হিটে আসার লক্ষণেএর ৩ দিন পূর্বে থেকে এই প্রস্তুতি পর্ব শুরু হয়। হিটে আসার পূর্বের এই সময় কে প্রস্তুতি পর্ব বলে। গাভী হিটে আসার প্রস্তুতি পর্বের লক্ষণ গুলো হলো-
√গাভী খাওয়া-দাওয়া কম করবে।
√ঝিমানি ভাব থাকবে।
√গাভীর যোনি মুখ দিয়ে স্বচ্ছ পাতলা ঝিল্লি বের হবে।

২/যৌন উত্তেজনা পর্ব বা Estrous
গাভী হিটে আসার লক্ষণ এর এটি দ্বিতীয় পর্ব। এই উত্তেজনা পর্ব ১ দিন বা ২৪ ঘন্টা স্থায়ী থাকে। আর আমাদের খামারি ভাইয়েরা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে এই পর্বেই বিজ দিয়ে থাকেন। এই পর্বে বিজ দিলে কন্সেপ্ট না করার হার ৯৮%। সুতারাং এই ধাপে কখনোই গাভীকে বীজ বা সিমেন দেওয়া যাবে না। গাভী হিটে আসার উত্তেজনা পর্বের লক্ষণঃ
√গাভী ঘন ঘন প্রসাব করবে।
√পাশে থাকা অন্য গাভির উপর লাফিয়ে উঠবে।
√অন্য গাভীর যৌনাঙ্গ শুকতে থাকবে।
√দুধ উৎপাদন কমে যাবে।
√গাভী ডাকতে থাকবে।

৩/কামত্তোর পর্ব বা Meta _ Estrous
গাভী হিটে আসার লক্ষণ এর এটি তৃতীয় পর্ব। এটিই হলো গাভীকে বীজ দেওয়ার সঠিক সময়। এই পর্বের স্থায়িত্ব কাল ১ থেকে ২ দিন। এই সময় বিজ দিলে কনসিভ করার হার ৯৯%।
√গাভীর যোনি পথ দিয়ে অনেক সময় রক্ত মিশ্রিত ঝিল্লি বের হয়।
√গরু খাওয়া কমিয়ে দেয়।
√গাভী ছটফট করে।
√অনবরত ডাকতে থাকে।

৪/নিস্ক্রিয় পর্ব বা Di-Estrous
গাভী হিটে আসার লক্ষণ এর শেষ ধাপটি থাকে ১৫ দিন। যদি গাভিকে বীজ না দেওয়া হয় তাহলে গাভির জরায়ু থেকে বের হওয়া ডিম্বানু গুলো মারা যাবে এবং গাভির সমস্ত জনন অঙ্গ স্বাভাবিক হবে। এর পর কয়েক দিনের মধ্যে আবার হিটে আসার ধাপ গুলো শুরু হবে। এসময় কে নিস্ক্রিয় পর্ব বলে।

গরুর সাইলেন্ট ডাকঃ
ইদানিং অনেক গরুতে দেখা যায় গরু মুখে ডাকে না। এক্ষেত্রে গরুর আচরণ দেখে খামারিকে বুঝতে হয় যে গাভী হিটে এসেছে। এসময় গরু হিটে আসার অন্যান্য যে অন্যান্য যে লক্ষণ ও আচরণ গুলো আছে সেগুলো করতে থাকবে।
আর তাই প্রজননক্ষম গাভী বা বকনা থাকলে তার আচরণের উপর নজর রাখতে হবে। গরুর ঘরে দীর্ঘ দিন একা ভাবে পালন করলে গাভী ডাক আসলে মুখে ডাকতে দেখা যায় না।

ডাঃ মোঃ শাহীন মিয়া
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা
ভেটেরিনারি অফিসার বিজিবি
পিলখানা ঢাকা।



Source link