ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • অন্যান্য

তরমুজ চাষে ঝুঁকছেন খুলনার কৃষকরা

admin
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১ ৮:০০ পূর্বাহ্ন । ৯২ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি





তরমুজ চাষে ঝুঁকছেন খুলনার কৃষকরা। লাভজনক হওয়ায় দিন দিন তরমুজ চাষের দিকে ঝুঁকছেন খুলনায় বিভিন্ন এলাকার কৃষকরা। আগে শসা চাষের জন্য বিখ্যাত তেরখাদা উপজেলার কৃষকরা এখন তরমুজের চাষ করছেন। ঘেরের আইলে উৎপাদিত শসার চেয়ে মৌসুম ছাড়া উৎপাদিত তরমুজ চাষ বেশি লাভজনক। তাই তাই তরমুজ চাষে দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের।

জানা যায়, ডুমুরিয়া উপজেলার ব্যাপক পরিচিতি থাকলেও শসা উৎপাদনে সব সময় এগিয়ে রয়েছে জেলার তেরখাদা উপজেলা। এখানকার শসা দেশের সীমানা পেরিয়ে বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে। কিন্তু দিনকে দিন দাম কমে যাওয়ায় কৃষকরা শষা উৎপাদনে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন। এ ছাড়া শসা উৎপাদনে বেশি পরিমাণে সার ও কীটনাশক ব্যবহার করতে হয়। ফলে মাটির উর্বরা শক্তি কমে যায়, মাছের উৎপাদনও কমে যায়।

কৃষক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শসার চেয়ে তরমুজ চাষে লাভ বেশি। তাছাড়া সার আর কীটনাশকও কম লাগে। একই কথা জানালেন কাটেঙ্গা এলাকার শাকিল, রাশেদ, আনিসরা। তারা বলেন, তরমুজ এই এলাকায় নতুন করে উৎপাদন হওয়ায় কৃষি অফিস থেকে অনেক সহযোগীতা করা হচ্ছে তাদেরকে।

আরেক কৃষক শফিকুর রহমান জানান, আমাদের এলাকা শসা চাষের জন্য বিখ্যাত। কিন্তু এখন শসায় আর লাভ হচ্ছে না। পাশাপাশি শসা চাষের খরচ বেড়েছে, সার কীটনাশকের দামও বেড়েছে। শসা চাষ করতে সার আর কীটনাশক বেশি প্রয়োজন। তাই শসার চাষ বাদ দিয়ে তরমুজের চাষ শুরু করেছি।

উপজেলার  কৃষি অফিসার শফিকুল ইসলাম বলেন, এক সপ্তাহ আগে যে শসা ১৫-১৬ শত টাকা মণ বিক্রি হয়েছে। এক সপ্তাহ পরে গিয়ে সেই শসা ৩ শত টাকায় নেমে এসেছে। এতে কৃষক ভীষণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। ফলে শসা ছেড়ে এবার কৃষকরা মৌসুম ছাড়া তরমুজ চাষে বেশি আগ্রহী হয়েছেন। তরমুজ চাষ করার জন্য কৃষকদের সব ধরনের সহযোগীতা করা হচ্ছে।


আরও পড়ুনঃ খুলনায় সবজি চাষে ব্যস্ত কৃষকরা


কৃষি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার







Credit: Source link