ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৯ অগাস্ট ২০২১
  • অন্যান্য

নবাবগঞ্জে গাড়ল পালনে স্বাবলম্বী সবুজ

admin
অগাস্ট ১৯, ২০২১ ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন । ৬০ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি





দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জে গাড়ল পালনে স্বাবলম্বী হয়েছেন সবুজ। জেলার এ উপজেলায় দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে গাড়ল পালন। তুলনামূলকভাবে কম খরচে ও কম পরিশ্রমে গাড়ল পালন করা যায় বলে অনেকেই এখন গাড়ল পালন করছেন। ভেড়ার একটি উন্নত প্রজাতির নাম গাড়ল। এগুলো দেখতে প্রায় ভেড়ার মতো।

জানা যায়, ২০১৯ সালে ১০টি গাড়ল ১৫টি ছাগল নিয়ে সবুজ এগ্রোফার্মের যাত্রা শুরু করেন দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার ইসলামপাড়া গ্রামের শিক্ষিত বেকার যুবক শাহিনুর রহমান সবুজ। বর্তমানে এই খামারে ১১০টি ভুটান ও ইন্ডিয়ান গাড়ল এবং ১২০টি রাজস্থানী, বিটল, যমুনাবারী ও তোতাপুরী প্রজাতির ছাগল রয়েছে। একটি পূর্ণ বয়স্ক গাড়লের বাজার মূল্য ৫০-৭০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

খামারি সবুজ বলেন, প্রথমে ১০টি গাড়ল ১৫টি ছাগল নিয়ে খামার শুরু করি। এখন তার খামারে ২০০টির বেশি গাড়ল ও ছাগল রয়েছে। বছরের এখান থেকে প্রায় ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা আয় করে থাকেন। এর পাশাপাশি তার গরুরও খামার রয়েছে। গাড়লের মাংসের চাহিদা অনেক। ১ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়ে থাকে গাড়লের মাংস। অল্পবিনিয়গে বেশ লাভ হওয়াই এলাকায় সারা ফেলেছে এই গাড়লের।

নবাবগঞ্জ উপজেলার প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান জানান, আমরা প্রাণিসম্পদ অফিস থেকে নিয়মিত টিকাসহ সব ধরণের সেবা দেওয়া দিচ্ছি। এই উপজেলাতে প্রায় কয়েখটি ছোট বড় গাড়লের খামার রয়েছে। সবুজের খামারটি বড়। গাড়ল পালনে তেমন কোন খরচ হয়না। অল্প পুঁজিতে বেশি লাভ হওয়ার কারণে অনেকেই এই গাড়ল পালনে ঝুঁকছেন।


আরও পড়ুনঃ যেসব সুবিধা নিশ্চিত করে গরুর বাসস্থান তৈরি…


ডেইরি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার







Credit: Source link