ঢাকাসোমবার , ২৬ জুলাই ২০২১
  • অন্যান্য

পাইকারীতে ব্রয়লার মুরগি ৯০ টাকা; লোকসানে পুঁজি হারাচ্ছেন খামারিরা!

admin
জুলাই ২৬, ২০২১ ৪:৩৪ পূর্বাহ্ন । ৯৯ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি





করোনা পরিস্থিতিতে দিন দিন অবনতির দিকে যাচ্ছে দেশের পোল্ট্রি শিল্প। টানা কয়েক সপ্তাহ ধরে মুরগির বাজারে চলছে মন্দা। ব্রয়লারসহ অন্যান্য ফার্মের মুরগির বর্তমান বাজারমূল্যে হতাশ দেশের প্রান্তিক পোল্ট্রি খামারি থেকে শুরু করে দেশের পোল্ট্রি সংশ্লিষ্টরা। এমতাবস্থায় প্রতিদিন গুনতে হচ্ছে লোকসান এতে করে পুঁজি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পথে বসছেন প্রান্তিক খামারিরা।

পোল্ট্রি খামারিরা জানিয়েছেন, প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি উৎপাদনে লোকসান হচ্ছে প্রায় ২০-২৫ টাকা। লোকসানে বিক্রি করলেও খুচরা ব্যবসায়ীরা ঠিকই লাভ করছে। এতে করে ন্যায্য দাম থেকে খামারিদের পাশাপাশি ক্রেতারাও হচ্ছেন বঞ্চিত । মুরগির বাজার এরকম চলতে থাকলে পোল্ট্রি খামার বন্ধ করে দেয়া ছাড়া আর কোন উপায় থাকবেনা বলেও জানান খামারিরা। যদিও ইতোমধ্যে অনেক খামারি পুঁজি হারিয়ে হয়েছেন নিঃস্ব গুটিয়ে নিয়েছেন ব্যবসা।

গত ২৫ জুলাই, রবিবার পাইকারী ও খুচরা বাজার পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, সিলেটে পাইকারী রেটে ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হয়েছে ৯০ টাকা কেজি দরে এছাড়াও গাজীপুরে ৯০ টাকা, ময়মনসিংহ ৮৫ টাকা, টাঙ্গাইল ৯০ টাকা, ফরিদপুরে ৯২ টাকা, চট্টগ্রাম ৯২ টাকা, নোয়াখালী ৯০ টাকাসহ অন্যান্য বিভাগীয় শহরগুলোতেও এমনি কাছাকাছি দামে বিক্রি হচ্ছে ব্রয়লার মুরগি। অথচ খুচরা বাজারে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩৫-১৪৫ টাকা কেজি দরে।

এদিকে পাইকারী বাজারে ব্রয়লার মুরগি গড়ে ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও রাজধানীর বিভিন্ন খুচরা বাজারে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৪০ টাকা করে। খুচরা বিক্রেতারা প্রত্যাশামতো লাভ করলেও পাইকারী বাজারে মুরগির দাম না পেয়ে হতাশ হয়ে পড়ছেন খামারিরা।

টাঙাইল সদরের খামারি শরিফ বলেন, লকডাউন ও ইদ পরবর্তী মুরগির চাহিদা কমে গেছে। যারফলে অস্বাভাবিকভাবে মুরগির দাম কমেছে। কিন্তু খাদ্য সহ অন্যান্য খরচ কমেনি ফলে উৎপাদন ব্যয় ও বিক্রির মধ্যে একটা বিরাট গ্যাপ তৈরি হচ্ছে এতে করে লোকসানের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এভাবে বেশিদিন চললে খামারিরা নিঃস্ব হয়ে পড়বে।







Credit: Source link