ঢাকাবুধবার , ২৮ জুলাই ২০২১
  • অন্যান্য

ফার্মে কত ওয়াট এবং কত লাক্স এর কয় টি বাল্ব দিতে হবে, কোন আলোতে কি হয়

admin
জুলাই ২৮, ২০২১ ৭:১৬ পূর্বাহ্ন । ৬১ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি

ফার্মে কত ওয়াট এবং কত লাক্স এর কয় টি বাল্ব দিতে হবে।বাল্বের প্রকারভেদ।কোন আলোতে কি হয়।

ফার্ম করার পর সঠিক ভাবে কারেন্টের লাইন কতটী হবে,কত দূর হবে তা সাজানো উচিত।

প্রডাকশন আর গ্রোয়ারের ঘরের বাল্বের লাইন কম বেশী হবে,তাছাড়া বয়স অনুযায়ী ওয়াট কম বেশি হবে।

১ম দিকে আলো বেশি(৩৫লাক্স) পরে কমাতে হবে(১৬ লাক্স)আবার ও ক্মমাতে হবে ১২ লাক্স ,এমন কি ৬লাক্স ও করতে হয়,পরে আবার বাড়াতে হবে ১২ এবং লাস্টে ১৬-১৭ লাক্সে নিয়ে আসতে হবে।

কত ওয়াট এবং কত লাক্স:

লাক্সঃA lux of light intensity is equal to one lumen per sq meter.

ক্যান্ডেলঃ a candle is unit of luminous intensity of a light source in a special direction.

লুমেনঃlumen is defined as the rate at which light falls on a sq ft area surface which is equally distant one foot from a source whose intensity is one candela.

ইনক্যা্নডেসসেন্ট(Incandescent) বাল্বঃ

ফুট ক্যান্ডেলঃ১ ফুট ক্যান্ডেল = ১লুমেন পার স্কয়ার ফুট।

1 lux =০.০৯২৯ ফুট ক্যান্ডেল

১ফুট ক্যান্ডেল= ১০.৭৬ লাক্স

১ওয়াটঃ৬.১৫লুমেন

১বর্গফুট স্থান ০.২৫ ওয়াট হিসাবে ১ বর্গ মি ঃস্থানেঃ0.২৫ *১০.৭৬ঃ২.৭০ ওয়াট।

২.৭০ ওয়াট ঃ২.৭০*৬.১৫ঃ১৬.৬০।

100watt :6 lux

ব্রয়লার বাচ্চা

৯-১২ ওয়াটের এল ই ডি ৭-৮ফুট উপরে দিলে ২০লাক্স হবে ১টা ব্রুডারে।

অথবা

২০০ বর্গ ফুট জায়গার জন্য ৪০ ওয়াট

৭দিন পর ১০০ বর্গফুট জায়গার জন্য ৪০ ওয়াট

১০লাক্সঃ ১ ওয়াটঃ ৪ বর্গ ফুট( ১০০০ বর্গ ফুটের জন্য ২৫০ওয়াট)

২০ লাক্সঃ১ ওয়াটঃ ২ বর্গ ফুট( ১০০০ বর্গ ফুটের জন্য ৫০০ওয়াট )

বাল্ব কত প্রকার

১।ই্নক্যানডেসসেন্ট(আগের লাল বাতি) ১৬লুমেন/ওয়াট

এদেরকে ফিলামেন্ট বাতি বলা হয়।

এগুলো আলোর চেয়ে তাপ বেশি দেয়।

দামে সস্তা

ইফিকেসি কম

প্রতিফলক না দিলে আলোর অপচয় হয়।

সর্ট বাল্ব লাইফ ৭৫০-১০০০ ঘ ন্টা

২।ফ্লোরোসেন্ট(এনার্জি বাতি) ৫০-১০০লুমেন/ওয়াট/

৩-৪ গুণ ইফিকেসি

১০গুণ বেশি চলে

৩।মার্কারি (গ্যাস বাতি)

৩৫-৬৫লুমেন/ওয়াট

ইফিকেসি ২৪০০০ ঘন্টা চলে

৪।এল ই ডি ঃ(২০০-২২০লুমেন/ওয়াট)

এনার্জির চেয়ে ৩গুণ বেশি আলো দেয়।

৫।সোলার
এনার্জি ২৩-৩০ওয়াট ,এল ই ডি ৭-১৪ ওয়াট ভাল

৬০ওয়াটের বেশি বাল্ব ব্যবহার করা ঠিক না,এতে আলোর ইউনিফর্মিটি থাকে না এবং বিদ্যু খরচ বেশি হয়।

১ওয়াট বাল্ব ৪বর্গফুট জায়গায় ১ফুট ক্যান্ডেল মাত্রায় আলোকিত করতে পারে।

২৫ ওয়াটের ১টি বাল্ব ২৫*৪ঃ১০০ বর্গফুট যায়গায় আলো দিতে পারে।

বাতি ব্যবস্থাপনা

১।মুরগি মেঝেতে পালন করলে মেঝে থেকে যত উপরে বাল্ব স্থাপন করা হবে তার দেড়গুণ দূরে অন্য বাল্ব স্থাপন কয়ারতে হবে।যেমন ৬ফুট উচুতে বাল্ব স্থাপন করলে অন্য বাল্ব দিতে হবে ৯ফুট দূরে।

২।ঘরে যত ওয়াটের বাল্ব ব্যবহার করা হবে তার ১/৪ দূরে অন্য বাল্ব দিতে হবে।

যেমন ৬০ ওয়াটের বাল্ব দিলে ৬০/৪ঃ১৫ফুট দূরে অন্য বাল্ব দিতে হবে।

৩।যদি একাধিক সারিতে বাল্ব দিতে হয় তবে বাল্ব আঁকাবাঁকা মানে z এর মত করে দিতে হবে যাতে সবাই আলো পায়।

এ ক্ষেত্রে পাশের দেয়াল থেকে বাল্বের দূরত পাশাপাশি ২বাল্বের দূরতের অর্ধেক হবে।

৪।ফিলামেন্ট বাতি ব্যবহার করলে প্রতিফলক দেয়া ভাল

৫।২০ ওয়াটের ফ্রোরোসেন্ট বাতি ৬০ ওয়াটের ফিলামেন্ট বাতির সমান।

৬।বাতি ঝুলিয়ে দেয়া উচিত না ,এতে বাতি বাতাসের কারণে দোলতে থাকে এবং মুরগি ভয় পায়।

৭।আলোর উৎস দিগুণ হলে আলোর প্রখরতা ১/৪ হয়ে যায়।

প্রতিফলক ঃ বাল্বের উপর প্রতিফলক দেয়া উচিত যাতে আলো নিচের দিকে সব খানে সমভাবে যায় এবং ১৪দিন পর পর বাল্ব পরিস্কার করা উচিত।এতে ৫০% আলো বেশি পাবে।

যদি না করা হয় তাহলে নিচের মত অবস্থা হবে।

কালারের সাথে মুরগির সম্পর্ক ঃ

আইটেম লাল কমলা হলুদ সবুজ নীল

সবুজ ও নীল আলোতে ওজন ভাল আসে এবং তাড়াতাড়ি প্রডাকশনে আসে।

লাল,কমলা,হলুদ আলোতে ডিম দেরীতে আসে।

লাল ও নীল আলোতে ক্যানাবলিজম কম হয়।

লাল ও কমলা আলোতে ডিম ভাল পাড়ে।

হলুদ আলোতে ডিম কমে যায় কিন্তু ডিমের সাইজ বড় হয়।

হলুদ ও নীল আলোতে মেলের ফার্টীলিটী বেড়ে যায় কিন্তু লাল আলোতে কমে যায়।

ফ্লোরোসেন্ট লাইট সবচেয়ে ভাল ডিমের জন্য কিন্তু বিদ্যুৎ বিল অনেক বেশি যার কারণে তা কস্ট ইফেক্টীভ না।

হলুদ ও সবুজ আলোতে এফ সি আর বেড়ে যায়।

২০০০মুরগির ক্ষেত্রে
সেডের প্রস্থ যদি ২৪ ফুট
এবং লম্বায় যদি ৯২ ফুট হয়

তাহলে
খাচার ক্ষেত্রে
বালবের লাইন হবে ৩টি, উভয় ওয়াল থেকে ৪ফুট ভিতরে ২টি লাইন এবং ২টি লাইনের মাঝে ১টি.
প্রতি লাইনে ৮টা করে ৩ লাইনে ২৪টি

৩০গুন২৪ঃ ৭২০ ওয়াট

এল এ ডি হলে ২৪গুন ৭ঃ১৮৬ ওয়াট

৭-১০ ওয়াট দিতে পারবেন ।এর বেশি না.১০ওয়াট হলে ২৪০ওয়াট হবে।

প্রতিটি বালব ফ্লোর থেকে ৭ফুট উপরে হবে সেট করতে হবে.

আর ফ্লোরের ক্ষেত্রে
২ওয়াল থেকে ৬ফুট ভিতরে ২টি লাইন
২লাইনে ১০ ফুট দূরে দূরে বালব।

সবই হবে ফ্লোর থেকে ৭ ফুট উপরে.
সব ৩০ ওয়াটের এনার্জি বালব ধরে হিসেব করা হয়েছে.

প্রতি বর্গ মিটারে কত ওয়াট বালব দিলে কত লাক্স পাওয়া যায় এবং কোন বয়সে কত লাক্স দিতে হবে তা নিম্নে দেয়া হল:

১বর্গমিটার -১০.৭৬ বর্গ ফুট

সপ্তাহ ওয়াট/বর্গ মি: লাক্স
১ম ৬ ৩৫
২-৩ ২.৭ ১৬.৬০
৪-১০ ২ ১২.৩৭
১১-১৬ ১ ৬.১৫
১৭-২০ ২ ১২.৩০
২০ এর পর ২.৭ ১৬.৬০

কম বয়সে কম লাক্স দিলে মুরগি খাবার কম খাবে এবং ওজন কম হবে আবার মাঝ বয়সে লাক্স বেশি দিলে অল্প বয়সে ডিম পাড়বে এবং পরবর্তিতে প্রলাপ্স হবে,বেশিদিন ডিম পাড়বেনা.

ডিম আসার সময় লাক্স কম দিলে ডিম কম পাড়বে.

নোটঃ

লালের তুলনায় সাদা মুরগিতে আলো ১ সপ্তাহ আগে লাইট বন্ধ করতে হবে।লালের ক্ষেত্রে ১০ সপ্তাহ হলে সাদায় ৯ সপ্তাহের দিকে দিনের আলোতে নিয়ে আসতে হবে।

নিচের কিছু পয়েন্ট বিভিন বই এ আছে কিন্তু সব মিলে না তবে কিছু ঠিক আছে।

লেয়ারে প্রডাকশন মুরগির ক্ষেত্রে

২৪০ বর্গ ফুট জায়গায় জন্য ৬০ওয়াটের ১টি বাল্ব ৭ফুট উপরে,১০ফুট দূরে।

১ফুট ক্যান্ডেল/১০লাক্সের জন্য ৭-৮ফুট উপরে ১টি ৬০ওয়াট ৪ বর্গ ফুট জায়গার জন্য

৬০ ওয়াট ঃ১০লাক্সঃ৪বর্গ ফুট

৬০ ওয়াটঃ২০লাক্সঃ২ বর্গ ফুট

গ্রোয়িং পিরিয়ডে ১ ওয়াট ১ বর্গ ফুটজায়গার জন্য

ডিম পাড়া মুরগিতে ০.৫ ওয়াট ১বর্গ ফুট জায়গার জন্য

অথবা

৬০ ওয়াট ১২০ বর্গ ফুট জায়গার জন্য(টিউব বাল্ব)

অথবা

দেড় বর্গ ফুট জায়গার জন্য ১ওয়াট।

ফার্মসএন্ডফার্মার/ ২৮ জুলাই ২০২১

Credit: Source link