ঢাকাসোমবার , ৯ অগাস্ট ২০২১
  • অন্যান্য

মোটাতাজাকরণে ছাগল ও ভেড়া নির্বাচনে করণীয়

admin
অগাস্ট ৯, ২০২১ ৭:০৫ পূর্বাহ্ন । ৬৮ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি

মোটাতাজাকরণে ছাগল ও ভেড়া নির্বাচনে করণীয় সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই জানা নেই। আমাদের দেশে ছাগল ও ভেড়া পালন একটি লাভজনক পেশা। ছাগল ও ভেড়া পালন যেমন লাভজনক পেশা তেমনি সঠিক ব্যবস্থাপনা না করতে পারলে আবার লোকসানের সম্ভাবনা থাকে। ছাগল ও ভেড়া পালন করে লাভবান হতে চাইলে মোটাতাজাকরণ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তবে এ ক্ষেত্রে কিছু বিষয় বিবেচনা করতে হয়। আসুন জেনে নেই মোটাতাজাকরণে ছাগল ও ভেড়া নির্বাচনে করণীয় সম্পর্কে- 

মোটাতাজাকরণের জন্য ছাগল ও ভেড়া নির্বাচনে কিছু বিষয় বিবেচনায় রাখতে হয়। সে বিষয়গুলো নিচে আলোচনা করা হল- 

স্বাস্থ্যঃ 


একেবারে মোটাতাজা পশু যেমন এই ব্যবসার জন্য সঠিক না। আবার জীর্ন শীর্ণ পশু থেকেও ভাল কিছু আশা করা যায় না। তবে ভাল ও সঠিক পশু চেনার ক্ষেত্রে খেয়াল করতে হবে- পশুর নাকের পাশ ভেজা ভেজা আছে কিনা, পশম মসৃন ও পশুর চঞ্চলতা আছে কিনা।

বাজার থেকে কেনার ক্ষেত্রে পশুটির প্রশাব-পায়খানা পর্যবেক্ষণ করতে হবে। প্রশাব-পায়খানা স্বাভাবিক হলেই ক্রয় করুন। কেননা পশু ভাল থাকলে তার প্রশাব-পায়খানা স্বাভাবিকভাবেই হবে।

দেহকাঠামোঃ


পশুর দেহের আকার বা কাঠামো মোটাতাজাকরনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারন অন্য সব এক হলেও কোন পশু যদি লম্বায় এক ইঞ্চি বড় হয় তার মাংশ কমপক্ষে এক কেজি বেশি হবে। তাই আকারে লম্বা ও দেহ বড় পশুকে মোটাতাজাকরনের জন্য নির্বাচন করতে হবে।

জাত নির্বাচনঃ


মোটাতাজাকরনের জন্য সঠিক জাত নির্বাচনের কোন বিকল্প নেই। কোন কোন জাত আছে দ্রুত বাড়ে আবার কোন কোনটা বাড়ে না। তাই সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। ছাগল-ভেড়ার ক্ষেত্রে সাধারনত যে জাতগুলি তুলনামূলক ঘন ঘন এবং বেশি বাচ্চা দেয় সে জাত দ্রত বাড়ে না। যদিও বোয়ার বা কালাহারির ক্ষেত্রে এর ভিন্নতা দেখা যায়।

শরীরের রংঃ


পশু ক্রয়ের ক্ষেত্রে রং একটা অন্যতম ফ্যক্টর। যেমন কোরবানির সময় মানুষ ভাল রং খোঁজে। তাই বাস্তবতার সাথে তাল রেখে বিশেষ বিশেষ রং যেমন কালো, লাল ইত্যাদি নির্বাচন করতে হবে।

লিঙ্গঃ


পশু পুরুষ হবে না স্ত্রী হবে তা মোটাতাজাকরনের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারন পুরুষ স্ত্রী পশুর থেকে দ্রুত বাড়ে। তাছাড়া যে পশুর আগে ম্যাচিউরিটি আসে তার গ্রোথ কম হয়। তাছাড়া বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য সবাই পুরুষ/খাসি পশুকেই বেশি পছন্দ করে। তাই দেরিতে ম্যাচিউরিটি আসে এমন পশুকে মোটাতাজাকরনের জন্য নির্বাচন করতে হবে।

বয়সঃ


ছাগল-ভেড়া সব সময় এক রকম বাড়ে না। জন্মের প্রথম তিন মাসে খুব দ্রুত বাড়ে। পরের তিন মাসে গ্রোথ কিছুটা কমে যায়। ৭-১২ মাস পরযন্ত গ্রোথ আরো কমে যায়। কিন্তু মোটাতাজাকরনের জন্য বেশ কিছু দিক বিবেচনা করতে হয়। যেমন-কোরবানির জন্য কমপক্ষে ১ বছর বয়সের পশুকে সবাই নির্বাচন করতে চায়।

তাছাড়া আমাদের দেশের মানুষ চর্বিযুক্ত মাংস কিনতে পছন্দ করে। আর ছাগল-ভেড়ার চর্বি শুরু হয় সাধারনত ১২ মাস বয়সের পর থেকে। তাই মোটাতাজাকরনের জন্য পশুর বয়স ১২ মাসের অধিক হতে হবে।

ডেইরি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার

Credit: Source link