ঢাকামঙ্গলবার , ১৫ জুন ২০২১
  • অন্যান্য

রংপুরে সবজি বীজ চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা

admin
জুন ১৫, ২০২১ ৩:১৯ পূর্বাহ্ন । ৪৮ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি


ফজলুর রহমানঃ রংপুরের পীরগাছা উপজেলার দুটি ইউনিয়নে প্রায় পাঁচ শতাধিক কৃষক বিভিন্ন সবজি বীজ উৎপাদন করে থাকেন। সবজি বীজ উৎপাদন করে অনেকের ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে। যাদের কয়েক বছর আগে অভাব-অনটন ছিল নিত্যদিনের সাথি, তারাই সবজি বীজ উৎপাদন করে ভাগ্যের পরিবর্তন করেছেন। অধিক লাভের আশায় দুটি ইউনিয়নের পাঁচ শতাধিক কৃষক সবজি বীজ আবাদের দিকে দিন দিন ঝুঁকছেন।

সোমবার(১৪ জুন)উপজেলার পারুল ইউনিয়নের দেউতী ব্লকের ছিদাম গ্রামসহ আশপাশের এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বিশাল এলাকা জুড়ে সবজির মাঠ। মাঠে বাঁশের মাচা করে করলা, ঝিংগা, চিচিঙ্গা, লাউ, বরবটিসহ বিভিন্ন প্রকার সবজি চাষ করছেন ওই এলাকার অধিকাংশ কৃষক।

চৈত্র মাসে জমি তৈরী করে সারিবদ্ধভাবে রোপণ করা হয় এসব ফসল ও সবজির বীজ। জমিতে দেয়া হয় দুই থেকে আড়াই ফুট উপরে বাঁশের মাচা। কৃষি বিভাগ ও বিএডিসির পরামর্শ এবং কৃষকের পরিচর্যায় সবজিগুলো থেকে বীজ বের করে নেন কৃষকরা।

ছিদাম বাজার এলাকা ঘুরে কথা হয় বিএডিসির একজন সফল বীজ উৎপাদন চাষি মনতাজুর রহমান জিল্লালের সঙ্গে। গত ১৩ বছর ধরে বীজ উৎপাদন করে আসছেন। তিনি আগের থেকে অনেকটা অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়েছেন। তিনি এবার হাইব্রিড মিষ্টি কুমড়া, লাউ ও করলার বীজ উৎপাদন করেছেন। উৎপাদিত বীজ বিক্রয় করে প্রায় ৫ লাখ টাকা আয় হবে বলে তিনি জানান।

লাউ বীজ চাষি জিয়াউর রহমান প্রতি বছরের ন্যায় এবারো ৬০ শতাংশ জমিতে লাউ চাষ করেন এবং বীজগুলো সংরক্ষণ করে কোম্পানিতে দেওয়ার উপযোগী করছেন। এবারে প্রায় ৩শ কেজি বীজ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। খরচ বাদে তিনি প্রায় লাখ টাকা আয়ের স্বপ্ন দেখছেন।

কৃষক সূত্রে জানা যায়, সবজি চাষিকে বিএডিসির পাশাপাশি লালতীর, সুপ্রিম সিড, মেটাল, এসিআই, ম্যাকডোনাল্টসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ভিত্তি বীজ দিয়ে তাদের ফিল্ড সুপারভাইজার ভাইজার দ্বারা কৃষকদের পরামর্শ দেন। উৎপাদিত বীজগুলোর গুণগত মান নির্ণয় করে কোম্পানি ক্রয় করে নেন।

পীরগাছা উপজেলার দেউতি ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সামসুজ্জামান বলেন, উপজেলার পারুল ইউনিয়নের নাগদাহ, শরিফ সুন্দর, সেচাকান্দি এলাকাসহ প্রায় পাঁচ শতাধিক কৃষক এই বীজ উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত। এবছর উপজেলার দুটি ইউনিয়নে ৪৫ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের সবজি বীজ চাষ করা হয়েছে। বীজ উৎপাদনে অধিক লাভ হওয়ায় বীজ চাষে কৃষকের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। এসব চাষিকে কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে সার্বক্ষণিক পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

পীরগাছা উপজেলা কৃষি অফিসার সাইফুল আলম এর সাথে মোবাইলে কথা হলে তিনি জানান, উপজেলা দেউতি ব্লকের কৃষকরা বিভিন্ন কোম্পাণীর সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়ে সবজি বীজ উৎপাদন করছে। আমরা শুধু তাদেরকে টেকনিকেল ভাবে সাহায্য করছি।

রংপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক(উদ্যান) কৃষিবিদ শামীমুর রহমান বলেন, উচ্চ ফলনশীল জাতের সবজি বীজ উৎপাদন ভবিষ্যতে ভালো ফলনের সম্ভাবনা। কৃষকরা এই বীজ উৎপাদন করে একদিকে লাভবান হচ্ছেন অন্যদিকে বাজারে ভালো মানের বীজেরও নিশ্চয়তা বাড়ছে।


আরও পড়ুনঃ দিনাজপুরে তরমুজ চাষে স্বাবলম্বী আদিবাসী নারীরা


প্রতিবেদকঃ রংপুর জেলা প্রতিনিধি


কৃষি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার

Credit: Source link