ঢাকাশুক্রবার , ২৩ এপ্রিল ২০২১
  • অন্যান্য

১৩০ টাকায় নেমেছে ব্রয়লার মুরগি, হতাশা বাড়ছে খামারিদের

admin
এপ্রিল ২৩, ২০২১ ৫:০৩ পূর্বাহ্ন । ১৫৭ জন
Link Copied!
agrilive24.com অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি


করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকেই অস্থিরতা বিরাজ করছে পোল্ট্রি শিল্পে। সপ্তাহ না ঘুরতে ঘুরতেই ব্রয়লার মুরগির দামে হ্রাস-বৃদ্ধি ঘটেছে। এদিকে আবারও কমতে শুরু করেছে ব্রয়লার মুরগির দাম। দাম কমে এখন প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৪০ টাকায়। এদিকে ব্রয়লার মুরগির দাম এমন হ্রাস-বৃদ্ধিতে হতাশা বাড়ছে দেশের প্রান্তিক খামারিদের।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) রাজধানীর নাখালপাড়া, কারওয়ান বাজার খুচরা বাজার, মগবাজার, রামপুরা, মালিবাগ, মালিবাগ রেলগেট, শান্তিনগর, সেগুনবাগিচা, ফকিরাপুল, মতিঝিল টিঅ্যান্ডটি কলোনি বাজার এবং খিলগাঁও বাজার ঘুরে এসব চিত্র উঠে এসেছে।
এসব বাজারে গত সপ্তাহে ১৪০-১৫০ টাকা দরের ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৪০ টাকায়। তবে ডিম চাহিদার তুলনায় সরবরাহ বেশি থাকায় খুচরা বাজারে আগের মতোই দামে মন্দা যাচ্ছে। ডজনপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৮৫-৯০ টাকা দরে।

কুড়িগ্রামের খামারি জামাল হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আমাদের মতো ছোট খামারিদের জন্য পোল্ট্রি ব্যবসা নয়। খাদ্যে, ঔষধ সহ অন্যান্য জিনিসপত্রে দাম বাড়তি , বাচ্চা কিনেছি ৫০ টাকা পিস। এখন মুরগি যদি বিক্রি করি ৯৫ টাকা তাহলে লাভ কোথায়? বরং লস হচ্ছে প্রায় ২৫ টাকা। এভাবে লোকসান দিতে দিতে দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে ঈদের আগে ব্রয়লার মুরগির দাম আর বাড়বে না।

নারায়নগঞ্জ আড়াইহাজারের পোল্ট্রি খামারি সেলিম উল্লাহ বলেন, বর্তমানে বস্তা প্রতি খাদ্যের দাম বেড়েছে ২০০-২৫০ টাকা। এছাড়াও বাচ্চা, ভ্যাকসিন ও ঔষধের দামও চড়া ফলে পোল্ট্রি পণ্য উৎপাদনে খরচ বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে করে পাইকারী পর্যায়ে মুরগি বিক্রি করতে হচ্ছে ১০০ টাকারও নিচে। যার ফলে প্রতি কেজি মুরগিতে লোকসান দিতে হচ্ছে প্রায় ২০-২৫ টাকা। এভাবে চলতে থাকে ব্যবসা গুটিয়ে ফেলা ছাড়া আর কোন উপায় থাকবেনা বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

নাখালপাড়ায় ব্রয়লার মুরগি কিনতে আসা সাগর বলেন, কিছুদিন আগে ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৫০ টাকা দিয়ে কিনেছি। আজ ১৩৫ টাকাতে পেয়ে গেলাম। ব্রয়লারের দাম কমায় আমাদের মতো মধ্যবিত্তদের জন্য বেশ স্বস্তির বলেও তিনি জানান।

রামপুরার ব্যবসায়ী সালাম বলেন, কিছুদিন আগেও আমরা ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৫০-১১৬০ টাকায় বিক্রি করেছি। কয়েকদিন ধরে পাইকারিতে দাম কমেছে। এ কারণে এখন ১৩০-১৪০ টাকা কেজি বিক্রি করতে পারছি।

যাত্রাবাড়ীর ব্যবসায়ী পিন্টু বলেন, ঈদের আগে ব্রয়লার মুরগির দাম বাড়ার সম্ভাবনা খুব কম। বরং সামনে দাম আরও কমতে পারে। এখন তো কিছু ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে। দাম না কমলে এক সপ্তাহ পরে বিক্রি আরও কমে যাবে।

Credit: Source link